Thursday , April 18 2024

ছিনতাই করা জাহাজ দিয়েই এমভি আব্দুল্লাহ জিম্মি!

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ভারত মহাসাগরে জলদস্যুদের কবলে পড়েছে বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আব্দুল্লাহ। সময় গড়ার সঙ্গে জাহাজটি নিয়ে একদিকে উৎকণ্ঠা বাড়ছে আর অন্যদিকে একে একে বিস্ফোরক তথ্য সামনে আসতে শুরু করেছে। ছিনতাই করা একটি জাহাজ ব্যবহার করেই বাংলাদেশি জাহাজটিতে হামলা চালিয়েছে জলদস্যুরা। শুক্রবার (১৫ মার্চ) বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের নৌবাহিনী জানিয়েছে, সোমালিয়ার জলদস্যুরা গত ডিসেম্বরে মাল্টার পতাকাবাহী কার্গো জাহাজ রুয়েন ছিনতাই করে। বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আব্দুল্লাহর নিয়ন্ত্রণ নিতে তারা এ জাহাজটিকে ব্যবহার করে থাকতে পারে। দুদিন আগে জাহাজটি ছিনতাইয়ের কবলে পড়ে।

সোমলিয়ার জলদস্যুরা আন্তর্জাতিক সমুদ্রপধে ২০১৮ সালের আগ পর্যন্ত বড় আতঙ্কের কারণ ছিল। তবে গত বছরের শেষ পর্যন্ত বেশ শান্ত ছিল। এরপর আবার তারা সরব হতে শুরু করেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, আগের ছিনতাই করা জাহাজ দিয়ে গত মঙ্গলবার বাংলাদেশি জাহাজে হামলার তথ্যটি সঠিক হলে এটি দস্যুদের আগের সেই কৌশলে ফিরে আসাকে চিহ্নিত করবে। এটি জানান দেবে যে আগের মতো আবারও তারা সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের দস্যুবিরোধী অভিযান ইউন্যাভফরের (EUNAVFOR) তথ্যানুসারে, ভিডিওচিত্রে দেখা গেছে যে অন্তত ১২ জন জলদস্যু বাংলাদেশি জাহাজে প্রবেশ করেছেন। সংস্থাটি জানিয়েছে, এটা সম্ভবপর যে এমভি রুয়েনের মতো একই পদ্ধতিতে জলদস্যুরা জাহাজটিতে অংশ নিয়েছে।

ব্রিটিশ সামুদ্রিক নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান অ্যামব্রে গত বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, সন্দেহ করা হচ্ছে আরও বাণিজ্যিক জাহাজে হামলার জন্য এটিকে মাদারশিপ ভেসেল হিসেবে ব্যবহার করা হতে পারে।

অ্যামব্রে জানিয়েছে, রুয়েন নামের ওই জাহাজটিকে সোমালিয়ার ইয়েল থেকে ১৬০ ন্যটিক্যাল মাইল দক্ষিণ-পূর্বের দিকে যাত্রা করতে দেখা গেছে। এ এলাকায় চলাচলকারী অন্যান্য জাহাজকে বাড়তি সতর্কতা বজায় রাখতেও নির্দেশনা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

রয়টার্স জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক নৌবাহিনী ২০১৭ সাল থেকে এডেন উপসাগর ও ভারত মহাসাগরে ব্যাপক মহড়া শুরু করে। এরপর থেকে এ পথে সেমালি জলদস্যুদের তৎপরতা অনেকাংশ কমে যায়। এরপর রুয়েন ছিল প্রথম সফল অভিযান।

অ্যামব্রে জানিয়েছে, সেই ঘটনার কয়েক মাস পার হলেও এখনো ক্রুদের মুক্তিপণ পরিশোধ করা হয়নি। সংবাদমাধ্যম বলছে, এ ঘটনায় একজনকে চিকিৎসার জন্য ছেড়ে দিলেও বাকি ১৭ ক্রু এখনও জিম্মি রয়েছেন।

ইউন্যাভফরের পরিকল্পনা ও সমন্বয় কেন্দ্র এবং হর্ন অব আফ্রিকা মেরিটাইম সিকিউরিটি সেন্টারের তথ্যানুসারে, গত নভেম্বর থেকে সোমালি ব্যাসিন ও এডেন উপসাগরে জলদস্যুরা অন্তত ২০টি জাহাজে হামলা চালিয়েছে।

About somoyer kagoj

Check Also

৫০ হাজার টন ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানির অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারত থেকে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির একটি প্রস্তাবে নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে অর্থনৈতিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *