Thursday , April 18 2024

ভিনিসিউসের জোড়া গোলে রেয়াল মাদ্রিদের রক্ষা

স্পোর্টস ডেস্ক:

প্রথমার্ধের বেশিরভাগ সময় ম্রিয়মান হয়ে রইল রেয়াল মাদ্রিদ। তিন মিনিটের মধ্যে হজম করল দুই গোল। পরে অবশ্য দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াল তারা। জোড়া গোল করলেন ভিনিসিউস জুনিয়র। হারের শঙ্কা উড়িয়ে ভালেন্সিয়ার মাঠে এক পয়েন্ট পেল কার্লো আনচেলত্তির দল।

হুগো দুরো ও রোমান ইয়ারেমচুকের গোলে স্বাগতিকরা এগিয়ে যাওয়ার পর প্রথমার্ধের শেষ দিকে ব্যবধান কমান ভিনিসিউস। নির্ধারিত সময়ের ১৪ মিনিট বাকি থাকতে নিজের দ্বিতীয় গোলে সমতা টানেন এই ব্রাজিলিয়ান তারকা।

ম্যাচের সমাপ্তি ঘটে চরম নাটকীয়তায়। ব্রাহিম দিয়াসের ক্রসে হেডে বল জালে পাঠান জুড বেলিংহ্যাম। কিন্তু তার আগেই ম্যাচ শেষের বাঁশি বাজান রেফারি। এতে ছড়িয়ে পড়ে তুমুল উত্তেজনা। রেফারিকে ঘিরে ধরে প্রতিবাদ জানাতে থাকেন রেয়ালের খেলোয়াড়রা।

ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে লাল কার্ড দেখেন বেলিংহ্যাম। অ্যাঙ্কেলের চোট কাটিয়ে তিন সপ্তাহ পর এই ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফেরেন ইংলিশ মিডফিল্ডার।

গত মৌসুমে এই মেস্তায়া স্টেডিয়ামে ভিনিসিউস বর্ণবাদের শিকার হওয়ার পর তোলপাড় উঠেছিল বিশ্বজুড়ে। ওই ম্যাচের শেষ দিকে লাল কার্ডও দেখেছিলেন তিনি, রেয়াল হেরেছিল ১-০ গোলে। তারপর প্রথমবার সেখানে খেলল স্পেনের সফলতম দলটি। চলতি মৌসুমে প্রথম দেখায় গত নভেম্বরে সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে ভালেন্সিয়াকে ৫-১ গোলে হারিয়েছিল রেয়াল।

এবার রেয়াল শুরু থেকে বল দখলে আধিপত্য করলেও সুযোগ তৈরি করতে ভুগছিল তারা। খেলার ধারার বিপরীতে ২৭ থেকে ৩০তম মিনিটের মধ্যে দুই গোল করে এগিয়ে যায় ভালেন্সিয়া।

দুটিতেই দায় ছিল রেয়ালের রক্ষণের। প্রথমটিতে ডান দিকে বক্সের বাইরে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের থেকে বল কেড়ে নেওয়ার পর তা হারিয়ে ফেলেন ডিফেন্ডার ফেরলঁদ মঁদি। সতীর্থের ক্রসে চমৎকার হেডে গোল করেন দুরো।

পরেরটিতে মারাত্মক ভুল করে বসেন দানি কারভাহাল। এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডার ব্যাক-পাস দেন গোলরক্ষকের উদ্দেশে, ছুটে গিয়ে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এগিয়ে আসা আন্দ্রি লুনিনকে কাটিয়ে ফাঁকা জালে বল পাঠান ইয়ারেমচুক।

প্রথমার্ধে রেয়ালের অস্বস্তিময় পথচলায় কিছুটা স্বস্তি হয়ে আসে যোগ করা সময়ে ভিনিসিউসের গোল। ডান দিক থেকে কারভাহালের বাড়ানো বলে গোলরক্ষক হাত ছোঁয়ালেও ক্লিয়ার করতে পারেননি। রদ্রিগোর পা ছুঁয়ে বল যায় ভিনিসিউসের কাছে। কাছ থেকে ব্যবধান কমান ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।

৫৪তম মিনিটে সুযোগ আসে বেলিংহ্যামের সামনে। বক্সে প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারের বাধা এড়িয়ে তার নেওয়া শট ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক। ৬০তম মিনিটে দারুণ সেভ করে ব্যবধান বাড়তে দেননি লুনিন। কাছ থেকে দিয়েগো লোপেসের প্রচেষ্টা পা দিয়ে আটকে দেন ইউক্রেইনের এই গোলরক্ষক।

৬৩তম মিনিটে একসঙ্গে দুটি পরিবর্তন আনেন আনচেলত্তি। টনি ক্রুসের জায়গায় লুকা মদ্রিচ ও রদ্রিগোর পরিবর্তে ব্রাহিমকে মাঠে নামান রেয়াল কোচ।

৭৬তম মিনিটে ব্রাহিমের ক্রসেই কাছ থেকে হেডে সমতা টানেন ভিনিসিউস। ভালেন্সিয়ার খেলোয়াড়রা রেফারিকে ঘিরে ধরে অফসাইডের দাবি জানালেও ভিএআরে বহাল থাকে গোলের সিদ্ধান্ত।

যোগ করা সময়ের শুরুতে দুরো রেয়ালের বক্সে পড়ে গেলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। তবে ভিএআরের সাহায্যে সিদ্ধান্ত পাল্টান তিনি। খানিক পর পিতার গনসালেসের শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান লুনিন। এরপর রেফারির শেষ বাঁশি ও বেলিংহ্যামের বল জালে পাঠানোর ওই ঘটনা। যা জন্ম দিয়েছে তুমুল আলোচনার।

২৭ ম্যাচে ২০ জয় ও ৬ ড্রয়ে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে রেয়াল। এক ম্যাচ কম খেলে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে জিরোনা দুইয়ে, ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে বার্সেলোনা তিনে আছে।

About somoyer kagoj

Check Also

ইনজুরি আক্রান্ত মেসি এবার জড়ালেন বিতর্কে

স্পোর্টস ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই ফুটবল মাঠের চেয়ে চোটের সঙ্গে লড়াই করেই সময় পার করতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *