Sunday , April 14 2024

ডিমের দামে কারসা‌জি, দুই প্রতিষ্ঠানকে সাড়ে ৩ কোটি টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

যোগসাজশের মাধ্যমে বাজারে অস্বাভাবিকভাবে ডিমের দাম বাড়ানোর অপরাধে ডায়মন্ড এগকে আড়াই কোটি টাকা এবং সিপি বাংলাদেশকে এক কোটি টাকা জরিমানা করেছে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন।

গত সোমবার (২২ জানুয়া‌রি) এ বিষয়ক দুটি মামলার রায় দেওয়া হয়েছে। আজ (২৪ জানুয়া‌রি) বিষয়টি প্রকাশিত হয়েছে।

বাজারে ডিমের দাম হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় ২০২২ সালে প্রতিযোগিতা কমিশন স্বপ্রণোদিত হয়ে বেশ কয়েকটি মামলা করেছিল। এর মধ্যে দুটির শুনানি শেষে দায়ী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে জরিমানার আদেশ দেয় কমিশন।

রায় আনুযায়ী ৩০ দিনের মধ্যে জরিমানার অর্থ প্রতিযোগিতা কমিশনে জমা দিতে হবে। তা না হলে প্রতিদিন এক লাখ টাকা করে জরিমানা বাড়বে।

এ ব্যাপারে প্রতিযোগিতা কমিশনের সদস্য হাফিজুর রহমান ঢাকা পোস্টকে বলেন, যোগসাজশের মাধ্যমে বাজারে অস্বাভাবিকভাবে ডিমের দাম বাড়ানোর অপরা‌ধ প্রমাণ হওয়ায় প্রতিযোগিতা আইন ২০১২-এর ধারা ১৫ লঙ্ঘনের অপরাধে ডায়মন্ড এগকে আড়াই কোটি টাকা এবং সিপি বাংলাদেশকে এক কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

প্রতিযোগিতা আইনের ১৫ (১) ধারায় বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি কোনো পণ্য বা সেবার উৎপাদন, সরবরাহ, বিতরণ, গুদামজাতকরণ বা অধিগ্রহণ সংক্রান্ত এমন কোনো চুক্তিতে বা ষড়যন্ত্রমূলক যোগসাজশে, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে আবদ্ধ হইতে পারিবে না, যাহা প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাব বিস্তার করে বা বিস্তারের কারণ ঘটায়, কিংবা বাজারে মনোপলি অথবা ওলিগোপলি অবস্থার সৃষ্টি করে।

আপিলের বিষয়ে আইনের ২৯ (১) ধারায় বলা হয়েছে, এই আইনের অধীন কমিশনের কোনো আদেশ দ্বারা কোনো ব্যক্তি সংক্ষুব্ধ হইলে উক্ত ব্যক্তি আদেশ প্রাপ্তির ৩০ (ত্রিশ) দিনের মধ্যে প্রবিধান দ্বারা নির্ধারিত ফরমে ও ফি প্রদান সাপেক্ষে উহা (ক) পুনর্বিবেচনার জন্য কমিশনের নিকট; অথবা (খ) আপিলের জন্য সরকারের নিকট আবেদন করিতে পারিবেন।

তবে শর্ত থাকে যে, ধারা ২০ এর অধীন কমিশন কর্তৃক প্রদত্ত কোনো প্রশাসনিক আর্থিক জরিমানা সংক্রান্ত আদেশ দ্বারা কোনো ব্যক্তি সংক্ষুব্ধ হইলে তাহার উপর আরোপিত জরিমানার- (ক) ১০% অর্থ কমিশনে জমা করিয়া পুনর্বিবেচনার; বা (খ) ২৫% অর্থ সরকারের নিকট জমা করিয়া আপিলের আবেদন জরিমানার জমার রশিদসহ করিতে পারিবেন।

২০২২ সালে দেশের ১০টি পোল্ট্রি ফার্ম ও পোল্ট্রি সংশ্লিষ্ট সংগঠনের বিরুদ্ধে ডিমের দাম বৃদ্ধিতে কারসাজির অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছিল।

এর মধ্যে, মামলা নং ৩৯/২০২২ ও মামলা নং ৪৪/২০২২-এর চূড়ান্ত আদেশ এল। মামলা নং ৩৯/২০২২ ছিল ডায়মন্ড এগ কোম্পানির নামে আর মামলা নং ৪৪/২০২২ ছিল সিপি বাংলাদেশ কোম্পানির নামে।

এর আগে, গত বছরের অক্টোবরে ব্রয়লার মুরগির দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি সংক্রান্ত মামলায় কাজী ফার্মস ও সাগুনা ফুডস নামে দুটি প্রতিষ্ঠানকে প্রায় সাড়ে আট কোটি টাকা জরিমানা করেছিল প্রতিযোগিতা ক‌মিশন।

About somoyer kagoj

Check Also

অর্থবছর ২০২৪-২৫শুরু হচ্ছে বাজেট প্রণয়নের কাজ, অর্থনীতি স্থিতিশীল রাখতে নতুন কৌশল

নিজস্ব প্রতিবেদক: অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলা, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণ, জ্বালানি সরবারহ নিশ্চিত করাসহ নানাবিধ চ্যালেঞ্জ নিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *