Friday , April 19 2024

‘সাফল্যে’ উচ্ছ্বসিত হাথুরু

স্পোর্টস প্রতিবেদক:

ভারতে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ব্যর্থতার অভিযোগের আঙ্গুল ছিল প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের দিকে। দলের এমন ভরাডুবিতে এই কোচের আরো একবার বিদায় হচ্ছে- এমনটাই ছিল গুঞ্জন। যদিও এই কোচের দাবি ছিল এমন ব্যর্থতার জন্য তিনি দায়ী নন। কারণ মাত্র ৭ মাস কাজ করার সময় পেয়েছেন। এ নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাতেই উত্তপ্ত আলোচনা। বেশির ভাগ বোর্ড পরিচালকই ছিলেন হাথরুকে বিদায়ের পক্ষে। তবে জানা গেছে একমাত্র বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনই কোচকে আরো সময় দিতে চেয়েছেন। এরপর অবশ্য পারফরম্যান্স ব্যর্থতার কারণ মূল্যায়ন করতে একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করে বিসিবি। যাদের রিপোর্টের ভিত্তিতেই ব্যবস্থা নেয়ার কথা ছিল। যেখানে হয়তো শেষ পর্যন্ত বলির পাঠা হতেন কোচই।

কিন্তু বিশ্বকাপের পরপরই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হাথুরু তার তারুণ্যের বিপ্লবে সফল। সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো তারকা ও সিনিয়র ক্রিকেটার ছাড়াই কিউইদের বিপক্ষে দেশের মাটিতে টেস্ট জয়ের ইতিহাস গড়ে নাজমুল হাসান শান্তর দল। এরপর নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে বদলে দেয় সাদা বলে পরাজয়ের ইতিহাস। প্রথমবারের মতো ওয়ানডে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পায় টাইগাররা। শুধু তাই কি তাই? প্রথম টি-টোয়েন্টি জিতে টাইগারদের সামনে ছিল সিরিজ জয়ের হাতছানি। তবে বৃষ্টিতে দ্বিতীয় ম্যাচ ভেসে যায়। আর শেষ ম্যাচে বৃষ্টি আইনে হেরে সিরিজ ড্র করে বাংলাদেশ। এমন সাফল্যে দারুণ খুশি বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ। হাথুরুসিংহে বলেন, ‘আপনি (সংবাদিক) যেমন বললেন, সিরিজ শুরুর আগে আমরা বলছিলাম আগে কী করেছি। আর আমরা তার চেয়ে ভালো করতে চাই। এদিক থেকে এটা খুব সফল একটা সফর।’

এর আগে সাদা বলে কোনো জয়ই ছিল না। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এখন তাদের মাটিতে তিন ফরম্যাটেই জয় আছে বাংলাদেশের। মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্ট জয়ে ইতিহাস রচিত হয়েছিল আগের বছরই। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে ব্যাট ও বল হাতে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন ক্রিকেটাররা। দেশের ক্রিকেটে মিলছে নতুন দিনের ক্রিকেটের বার্তাও। এবারের নিউজিল্যান্ড সফরকে তাই সফল বলছেন হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। তবে সিরিজ জিততে না পারার আক্ষেপও কম নয় প্রধান কোচের। তিনি বলেন, ‘সিরিজ জিততে না পেরে হতাশ। আপনি যেমন জানেন, আমরা সবাই জিততে চাই। এজন্যই খেলাটা খেলি। এক পর্যায়ে আমাদের সুযোগও এসেছিল ম্যাচ (তৃতীয় টি-টোয়েন্টি) জেতার। কিন্তু আমরা যথেষ্ট রান করিনি।’

বাংলাদেশের সামনে ছিল সিরিজ জেতার হাতছানিও। কিন্তু তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে স্রেফ ১১০ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। পরে ৪৯ রানে পাঁচ উইকেট তুলে নেয় নিউজিল্যান্ডের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ম্যাচ হারে বৃষ্টি আইনে ১৭ রানে। এ নিয়ে পরে হতাশার কথা জানান হাথুরু। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় দুই ওভার পরই আলোচনা করছিলাম যে এটা ১৬০ রানের উইকেট হবে না, এখানে ১৪০-১৫০ রানের উইকেট হবে। কিন্তু অবশ্যই আমরা সেটাও অর্জন করতে পারিনি, ভালো ব্যাট করিনি। আমাদের রান কম ছিল। কিন্তু বোলাররা আমাদের ম্যাচে রেখেছে। পুরো সিরিজজুড়ে যেভাবে বল করেছে তারা, বেশ মুগ্ধ করার মতো।’

পুরো সিরিজজুড়ে দুর্দান্ত ছিলেন পেসার শরিফুল ইসলাম। তিনি টি-টোয়েন্টিতে সিরিজ সেরার পুরস্কারও জিতেছেন। তৃতীয় টি-টোয়েন্টির পর শরিফুলকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন হাথুরুও। তিনি খুশি লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেনের পারফরম্যান্সেও। হাথুরু বলেন, ‘আমরা ড্রেসিংরুমে আলোচনা করেছিলাম তিন ফরম্যাটেই সমপ্রতি শরিফুল আমাদের জন্য অসাধারণ বল করছে। ৮ মাস আগে সে দলেই ছিল না, কোনো ফরম্যাটেই খেলছিল না। এখন সে সেরা বোলার। আরেকটা ব্যাপার হচ্ছে রিশাদ, আমরা একজন লেগ স্পিনারকে সাদা বলে ক্রিকেটে সুযোগ দেওয়ার চেষ্টা করছিলাম। সে তার পরীক্ষায় উতরে গেছে।’

About somoyer kagoj

Check Also

ইনজুরি আক্রান্ত মেসি এবার জড়ালেন বিতর্কে

স্পোর্টস ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই ফুটবল মাঠের চেয়ে চোটের সঙ্গে লড়াই করেই সময় পার করতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *