Thursday , April 18 2024

মহান বিজয় দিবসে খিলগাঁও মডেল কলেজের নানা আয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজধানীর খিলগাঁও মডেল কলেজে অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ ইমাম জাফর-এর দিকনির্দেশনা ও ব্যবস্থাপনায় অদ্য শনিবার ১৬ই ডিসেম্বর-২০২৩, সকাল ১০.০০ ঘটিকায় মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে খিলগাঁও মডেল কলেজের অডিটরিয়ামে এক আলোচনা সভা ও মাসব্যাপী আন্তঃক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২০২৩ এর ফাইনাল খেলার শুভ উদ্বোধন করা হয়। কলেজের সকল শিক্ষক, সকল ছাত্র-ছাত্রীর উপস্থিতিতে উক্ত আলোচনা সভায় অত্র কলেজের অধ্যক্ষ জনাব প্রফেসর মোঃ ইমাম জাফর-এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি জনাব আবদুর রউফ।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জনাব ওয়াহিদুল হাসান, জনাব খান মোঃ মামুন রশিদ, জনাব মোঃ শাখাওয়াত হোসেন, জনাব মোঃ নুরুজ্জামান জুয়েল, জনাব আব্দুল্লাহ শামীম হায়দার, জনাব মোঃ তাজুল ইসলাম, জনাব মীর মোঃ আমান উল্লাহ, জনাবা সেলিনা আক্তার, জনাব মোঃ শাহজাহান মন্ডল, জনাব মুহাম্মদ আরিফুর রহমান, জনাবা জেসমিন আক্তার, খিলগাঁও মডেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক ক্যামেলিয়া আফরিন।

আলোচনায় বক্তাদের বক্তব্যে ওঠে আসে মহান বিজয় দিবসের তাৎপর্যপূর্ণ জীবনঘনিষ্ঠ ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন ঘটনার বিবরণ। বক্তারা বলেন-

আজ মহান বিজয় দিবস-২০২৩। জাতির শ্রেষ্ঠ গৌরব, অহংকার ও আনন্দ উজ্জ্বলতার স্বাক্ষর একটি অনন্য দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে ৩০ লাখ বাঙালির বুকের রক্তে, ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানি ও অগণিত মানুষের সীমাহীন দুঃখ-দুর্ভোগের বিনিময়ে বাঙালির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন এই বিজয় মুকুট শিরে পরেছিল বাংলাদেশ। সুদীর্ঘ ২৩ বছরের পাকিস্তানিদের অত্যাচার-নিপীড়ন আর সীমাহীন বঞ্চনার শৃঙ্খল ভেঙে বেরিয়ে আসার অমোঘ বাণী বজ্রনিঘোঁষ কণ্ঠে ঘোষণা করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান: ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ স্বাধীনতার সেই মহানায়কের প্রতি বিজয়ের এই দিনে আমাদের অকুণ্ঠ শ্রদ্ধা ও সালাম। তার সঙ্গে পরম শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি তাদের যাদের অমূল্য সংগ্রামী জীবনের বিনিময়ে আজ আমরা স্বাধীন জাতি হিসেবে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পেরেছি। বাস্তবিক পক্ষেই এক সাগর রক্তের বিনিময়ে আমরা মুক্ত স্বাধীন স্বদেশভূমি পেয়েছি। মুক্তিযুদ্ধের একেবারে শেষপ্রান্তে পাকিস্তান বাহিনী ও তাদের এ দেশীয় দোসর রাজাকার, আলবদর, আল শামসরা বেছে বেছে এ ভূখণ্ডের কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী, দার্শনিক, চিকিৎসক, বুদ্ধিজীবী হত্যার যে তাণ্ডবে মেতে উঠেছিল সেই ক্ষতি কোনোকিছু দিয়েই পূরণ করা সম্ভব নয়। স্বজন হারানোর স্মৃতি এ বিজয়ের দিনেও আমাদের বিষাদগ্রস্ত করে তোলে।

সন্দেহ নেই, মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে অনেক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করেছে বাংলাদেশ। স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতাকে হত্যা করেছে পরাজিত ঘাতকরা। মুক্তচিন্তা ও প্রগতিশীলতার অগ্রযাত্রাকে খাঁমচে ধরেছে পশ্চাৎপদ মানসিকতার ধারক ও বাহক ক্ষমতালিপ্সু মৌলবাদের দোসররা। ওরা আমাদের এক অন্ধকার যুগের দিকে ঠেলে দিয়েছে। স্বাধীন দেশে পাকিস্তানিদের দোসর একাত্তরের ঘাতক যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে শাস্তি দেওয়া যায়নি বহুদিন। অবশেষে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ’৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে স্বাধীনতাবিরোধীদের বিচার কার্যক্রম শুরু করে। মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হতে থাকে একের পর এক রাজাকার-আলবদরের। সে বিচার প্রক্রিয়া এখনো সমান গতিতেই চলমান রয়েছে। তবে রাজাকার-আলবদরদের দোসরদের আজো আস্ফালন দেখতে হচ্ছে আমাদের। তাই আজকের এই বিজয়ের দিন শুধু আনন্দ আর উদ্যাপনের নয়, এই খুনিদের যারা আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়ে সমাজে, রাজনীতিতে পুনর্বাসিত করেছে- আজ তাদের ধিক্কার জানানোরও দিন। শহিদের রক্তে ভেজা মাটি থেকে স্বাধীনতার শত্রু, গণতন্ত্রের শত্রু, মানবতার শত্রুদের এবং তাদের সব অপতৎপরতা উৎখাত করার দৃঢ় শপথ নেওয়ার দিন। আনুষ্ঠানিকতানির্ভর, প্রতিশ্রুতিসর্বস্ব উচ্চারণ, স্ববিরোধী অঙ্গীকার বর্জন করে আমাদের এগুতে হবে সততা ও প্রগতির পথে।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে অত্র কলেজের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ঢাকা-০৯ আসনের মাননীয় এমপি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরিবেশ ও জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব সাবের হোসেন চৌধুরী কলেজের শহিদ মিনারে শহিদদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন এবং মাসব্যাপী আন্তঃক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২০২৩ এর ফাইনাল খেলা শুভ উদ্বোধন করেন। এটি খিলগাঁও মডেল কলেজের জন্য নিশ্চয়ই একটি গৌরবের ব্যাপার ছিল। আজকের ফাইনাল খেলার প্রথম দিনে অত্র কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগ এবং ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগ অংশগ্রহণ করে।

About somoyer kagoj

Check Also

২১ ফেব্রুয়ারি ঘিরে নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই : ডিএমপি কমিশনার 

বিশেষ প্রতিনিধি: ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান বলেছেন, একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *